সহজ হচ্ছে ব্যাংক হিসাব খোলা

বর্তমানে বিভিন্ন ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট বা হিসাব খুলতে ‘গাদা গাদা’ পৃষ্ঠার ফরম পূরণ করতে হয়। দিতে হয় প্রায় এক শ’ ধরনের তথ্য। যার মধ্যে অনেকগুলো আবার অপ্রয়োজনীয়।

বেশ কিছু আবার ব্যাংক কর্তৃক পূরণ করা প্রয়োজন। অথচ তা গ্রাহকের ওপর চাপিয়ে দেয়া হয়। এ ধরনের ফরম সহজ করে গ্রাহকবান্ধব করার লক্ষ্যে এটি দুই পৃষ্ঠায় সীমাবদ্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ. বি. এম রুহুল আজাদের সভাপতিত্বে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটির বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ে এ সভাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। সভায় বাংলাদেশ ব্যাংক, বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ), বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) এবং সোনালী ব্যাংকের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী বিদ্যমান ফরমের তিনটি অংশকে (হিসাব সংক্রান্ত তথ্যাদি, ব্যক্তি সংক্রান্ত তথ্যাদি এবং নমিনি সংক্রান্ত তথ্যাদি) একীভূত করে ২২টি ক্রমিক সম্বলিত একটি দুই পৃষ্ঠার হিসাব খোলার আবেদন ফরম তৈরি করতে হবে।

বিদ্যমান হিসাব খোলার আবেদন ফরমের হিসাব খোলার উদ্দেশ্য, গ্রাহকের অন্য কোনো ব্যাংকে পরিচালিত হিসাবের তথ্য এবং জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে হিসাব খোলার ক্ষেত্রে হিসাব পরিচয়দানকারীর তথ্য গ্রহণের বিষয়টি বাদ দিতে হবে। বিদ্যমান ব্যক্তি সংক্রান্ত তথ্যাবলি ফরমের হিসাবের নাম, গ্রাহক বা বেনিফিশিয়াল ওনার/হিসাব পরিচালনাকারীর নাম, হিসাবের সাতে সম্পর্ক, রেসিডেন্ট স্ট্যাটাস, পেশাগত ঠিকানা, যোগাযোগ, জরুরি প্রয়োজনে যোগাযোগের জন্য মনোনীত ব্যক্তি, ক্রেডিট কার্ড প্রভৃতি বিষয় বাদ দিতে হবে।

বিদ্যমান নমিনি সংক্রান্ত তথ্যাবলি ফরমের নমিনির পিতার নাম, মাতার নাম, স্ত্রী বা স্বামীর নাম প্রভৃতি বিষয় বাদ দিতে হবে। এছাড়া প্রস্তাবিত হিসাব খোলার ফরমে গ্রহকের নিকট হতে ট্রানজেকশন প্রোফাইল ঘোষণা নেয়ার ফরমটি বাদ দিতে হবে। বৈঠক সূত্র জানায়, বর্তমানে কোনো ব্যাংকে হিসাব খুলতে হলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) পাশাপাশি চাকরি বা ব্যবসা সংক্রান্ত পরিচয়পত্র, ওয়াসা, বিদ্যুৎ, টেলিফোন বিলের কপি এবং একজন পরিচয় প্রদানকারীর প্রত্যয়ন দিতে হয়। কিন্তু আগামীতে হিসাব খোলার ক্ষেত্রে ছবি ও এনআইডি ছাড়া আর কিছু লাগবে না।

যেকোনো অঙ্কের টাকা তথা ১০ টাকা জমা রেখেই খোলা যাবে ব্যাংক হিসাব। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্তৃক গ্রাহকদের হিসাব খোলার সময় অর্থ জমার অঙ্ক চাপিয়ে দেয়া যাবে না। দুই পাতার ফরমটি হবে খুব সিম্পল। যা স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরাও খুব সহজে পূরণ করতে পারবে। এখানে কোনো বাহুল্য তথ্য থাকবে না। নতুন এ নিয়ম আগামী মাস থেকে কার্যকর হওয়ার কথা। তবে তার আগে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করবে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপরই এটি কার্যকর হবে।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *