শিমুলের মূলের উপকারিতা

শিমুলের মূলের উপকারিতা: শিমুল গাছকে আমরা অনেকেই শুধু তুলা গাছ মনে করি। শিমুল গাছের গুণাবলী আমরা অনেকেই জানি না। জানি না শিমুল গাছ দিয়ে কি কি রোগের চিকিৎসা করা যায়। আজ আপনাদের শিমুল গাছের ঔষধি গুণ নিয়ে আলোচনা করব।

প্রচলিত নাম:

শিমুল (Cotton tree)

বৈজ্ঞানিক নাম:

Bombax ceiba L.

রাসায়নিক উপাদান:

লুপেওল, ফাগেরস্টেরল, ট্যানিন, টারপিনয়েড, স্যাপোনিন, আলফা-এমাইরিন, এপিগনিন, বিটা-সাইটোস্টেরল

ব্যবহৃত অংশ:

মূল, গাছের ছাল, কষ, ফুল, বীজ।

প্রধান কাজ:

শুক্রবর্ধক, বলকারক, লিউকোরিয়া ও অতিরিক্ত রক্তস্রাবে কার্যকর।

জেনে নিন, শিমুলের মূলের  উপকারিতা:

ফোঁড়া: 

ফোঁড়া হলে শিমুল গাছের ছাল ধুয়ে বেটে, তার ওপর প্রলেপ দিলে উপকার হয়।

যৌবনকালে শুক্রাণু স্বল্পতা:

চারা শিমুলগাছের মূল বেটে সাত থেকে দশ গ্রাম নিয়ে তার সঙ্গে একটু চিনি মিশিয়ে দু’বেলা খেলে শুক্রাণু স্বল্পতা দূর হবে।

আরো পড়ুন: হরিতকির উপকারিতা

পোড়া ঘা:

শিমুল তুলা নিয়ে তাতে শিমুল গাছের ছাল অর্থাৎ মোচরস দিয়ে ভিজিয়ে পোড়া ঘায়ে দিন, ঘা সেরে যাবে।

রক্ত আমাশয়:

শিমুলের ছাল ‍চুর্ণ করে এক থেকে দুই গ্রাম মাত্রায় নিয়ে, ছাগল দুধের সঙ্গে মিশিয়ে দু’বেলা খাওয়ালে উপকার হবে।

শিমুলের মূলের ভেষজ চিকিৎসা:

1/ শুক্র তারল্য, শারীরিক দুর্বলতায় ৭-১২ গ্রাম মূল চূর্ণ সমপরিমাণ চিনিসহ দিনে ১-২ বার সেবন করতে হবে।
প্রদর ও মহিলাদের অতিরিক্ত রক্তস্রাবে ১-২ গ্রাম শুষ্ক কষ চূর্ণ সমপরিমাণ দুধ ও চিনিসহ দিনে ১-২ বার সেবন করলে প্রদর রোগ ভাল হয়ে যায় ।

2/ যৌন দুর্বলতায় প্রৌঢ়ে যৌন সংসর্গে অপ্রতিভ হলে কচি শিমুল মূল চাকা চাকা করে। কেটে শুকিয়ে গুড়া করে ২ গ্রাম পরিমাণ গুড়া ১ কাপ গরম দুধে মিশিয়ে খেতে হবে। তাহলে এই সমস্যা দূর হবে।

3/ পিপাসায় পানি খেলেও পিপাসা যাচ্ছে না এমন হলে ৬-৭ গ্রাম শিমুল পাতার ডাটা একটু থেঁতো করে ১ গ্রাম পানিতে একটু ভিজিয়ে রেখে চটকে সেটা ঘেঁকে ২-৩ বার খেলে পিপাসার টান কমে যাবে।

4/ DOSথেরাপি শিমুল মূল পুরুষাঙ্গের সাথে আকৃতি ও প্রকৃতিগতভাবে সাদৃশ্যপূর্ণ। এতে রয়েছে ক্যাটেচুটেনিক এসিড, বিটা-সিটোস্টেরল, লুপেঅল, সেস্কুইতারপিনয়েড প্রভৃতি। তাই পুরুষাঙ্গের কোন সমস্যায় ১-৩ গ্রাম শিমুল মূলের পাউডার কার্যকর। তবে শিমুল। মূল অবশ্যই ২ বছরের কম বয়সী গাছের হতে হবে। অন্যথায় এর কার্যকারিতা কমে যাবে।

সেবন বিধি:

মূল চুর্ণ ৭১২ গ্রাম ।
শুল্ক কষ চূর্ণ ১-২ গ্রাম ।

সতর্কতা:

উষ্ণ প্রকৃতির লোকদের ক্ষেত্রে চিনি ও শতমূলী সহযােগে সেবন করা উত্তম।

আরো পড়ুন: গোলাপ ফুলের উপকারিতা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *