বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন?

বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন?

সংক্ষিপ্ত উত্তর:

কারণ বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ।

এবং বাংলাদেশে নদী – নালা – খাল – বিল ছড়িয়ে আছে প্রায় সবখানে। ফলে মাছ এখানে সহজলভ্য।

তা ছাড়া বাংলাদেশ পলিমাটির দেশ বিধায় ধানের ফলন হয় খুব ভালো। আদি কাল থেকেই ধান চাষ বাংলাদেশের কৃষকদের প্রধান কাজ।

বাংলাদেশের মানুষকে মাছে ভাতে বাঙালি বলা হয় কেন?

মাছে ভাতে বাঙালি কথাটি প্রকৃত অর্থেই সঠিক, মাছ ও ভাতের সঙ্গে বাঙালির সম্পর্ক বহুকালের।আদিকাল থেকেই মাছ খেতো বাঙালি।

মাছের সঙ্গে ভাতের সম্পর্ক নিবিড় হওয়ার কারণটি হলো বাঙালির মুখ্য খাদ্য ভাত এবং দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় পছন্দের পদ মাছ।

আরেকটি প্রধান কারণ হলো বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ, ধান ও মাছ দুইই সহজলভ্য। আর খাদ্য উপাদানের সহজলভ্যতা কোনো অঞ্চলের খাদ্যসংস্কৃতির মূল ভিত তৈরি করে।

যে অঞ্চলে খাবারের যে উপাদান সহজলভ্য, সে অঞ্চলে সে উপাদানকে কেন্দ্র করেই গড়ে ওঠে সেই অঞ্চলের প্রধান খাদ্যের পরম্পরা।

এর ফলেই ভাত ও মাছ কালক্রমে বাঙালির প্রধান খাদ্য হয়ে ওঠে। সেজন্যই সমগ্র বাঙালি জাতির সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে মাছে ভাতে বাঙালি কথাটি।

আরো পড়ুন:

সিয়ামের টবে কোন পুষ্টি উপকরণের অভাব ঘটেছে ব্যাখ্যা কর?

একটি সমাজ গঠন করতে কৃষি কিভাবে ভূমিকা পালন করে?

কিভাবে সেচের পানি অপচয় হয়?

ভালো লাগলে ,অবশ্যই লাইক কমেন্ট শেয়ার করবেন।

Photo Credit: Lovepik

সূত্র : অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *