কাঠ বাদাম এর উপকারিতা কি

আসসালামু আলাইকুম। আজকে আমরা জানবো, কাঠ বাদাম এর উপকারিতা কি নিয়ে।

কাঠ বাদাম আমাদের অতি পরিচিত খাদ্য।কাঠ বাদামের পুষ্টিগুণ প্রচুর থাকায় এটি সকলের কাছে খুব প্রিয় খাদ্য। কাঠবাদামে রয়েছে মনোআনস্যাচুরেটেড ও পলিআনস্যাচুরেটেড অয়েল, ফলিক অ্যাসিড জিঙ্ক, ও প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।এছাড়া কাঠ বাদামে যেসকল পুষ্টি উপাদান রয়েছে তা বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

কাঠবাদামের পুষ্টিগুণ:

প্রতি ১০০ গ্রাম কাঠ বাদামে রয়েছে

এনার্জি- ৫৭৮ কিলোক্যালরি

কার্বোহাইড্রেট- ২০গ্রাম

আঁশ- ১২ গ্রাম

ফ্যাট- ৫১ গ্রাম

প্রোটিন- ২২ গ্রাম

থায়ামিন- ০.২৪ মিলিগ্রাম

নিয়াসিন- ৪ মিলিগ্রাম

রাইবোফ্লেভিন- ০.৮ মিলিগ্রাম

প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড- ০.৩ মিলিগ্রাম

ভিটামিন ই- ২৬.২২ মিলিগ্রাম

ভিটামিন বি৬- ০.১৩ মিলিগ্রাম

ক্যালসিয়াম- ২৪৮ মিলিগ্রাম

আয়রন- ৪ মিলিগ্রাম

ম্যাগনেসিয়াম- ২৭৫ মিলিগ্রাম

পটাশিয়াম- ৭২৮ মিলিগ্রাম

কাঠবাদামের উপকারিতা:

স্বাস্থ্যের যত্নে কাঠবাদাম:

1.কাঠবাদাম শরীরে কলেস্ট্রলএর পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে কেননা এতে রয়েছে মনসেচুরেটেড ফ্যাট।

2.কাঠবাদামে এমন এক প্রকার ফাইবার আছে যেটি কোলন ক্যানসার রোধে সহায়ক।

3.কাঠ বাদামে ভিটামিন ‘ই’, Phytochemicals এবং flavonoi আছে যেটি ব্রেস্ট ক্যানসার রোধে সহায়তা করে।

4.কাঠবাদাম শরীরে ব্লাড সুগার এর ব্যালেন্স রাখে। তাই ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য অনেক উপকারী।

আরো পড়ুন: পেস্তা বাদামের উপকারিতা 

5.কাঠবাদাম এর তেল শরীরের শক্তি সঞ্চালন করে।

6.কাঠবাদাম আছে রিবফ্লাবিন, ফসফরাস, কপার, যেটা শরীরে শক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

7.কাঠবাদামে রযেছে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস,ও ভিটামিন ডি। যা শরীরে হাড় এবং দাঁত মসবুত করে।

8.হাড় ক্ষয়, আরথাইটিস রোগ আছে, তাদের জন্য কাঠবাদাম এর তেলের মালিশে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

9.কাঠবাদাম এর তেলে রয়েছে এনিমিয়া, যা জন্ম গত ত্রুটি এবং মস্তিষ্ক এর শক্তি বাড়াতে সহায়তা করে।

চুলের যত্নে কাঠবাদামের উপকারিতা:

1.কাঠবাদামে এর তেলে রয়েছে চুল বান্ধব মনো ফ্যাটি অ্যাসিড, তার সাথে ভিটামিন এ, ডি, ই, বি১, বি২ এবং বি৬। যা চুলকে পুষ্টি দেয়, চুল গোড়া শক্ত করে। ফ্যাটি অ্যাসিড চুল কে সফট, সোজা এবং সিল্কি করে।

2.কাঠবাদামে রয়েছে উচ্চ পরিমাণের ফসফরাস। যেটি ভালো চুল গজাতে সাহায্য করে। তাছাড়া চুল পড়ে প্রধানত ফসফরাস এর অভাবে। নিয়মিত কাঠ বাদাম খেলে ফসফরাসের অভাব মিটবে।

3.যাদের স্কাল্পে খুসকির সমস্যা আছে, তারা কাঠ বাদাম তেল + নিম তেল মিশিয়ে চুলে লাগান। সারারাত রেখে দিন। সকালে উঠে শ্যাম্পু করে ফেলুন। আশা করি খুশকির সমস্যা চলে যাবে ।

4.কাঠবাদাম তেল, মেথি গুঁড়া, ক্যাস্টর অয়েল, নারিকেল তেল মিশিয়ে চুলে লাগালে চুল এর আগা শক্ত হবে, চুল পড়া কমবে, চুল তাড়াতাড়ি বাড়বে।

আরো পড়ুন: চিনা বাদামের উপকারিতা

দ্রুত ওজন কমায় কাঠবাদাম:

কাঁচা কাঠবাদাম প্রোটিন এবং ফাইবারের উৎস যা অনেক সময় ধরে ক্ষুধার উদ্রেক করে না ফলে ক্ষুধা কম থাকে। এতে করে দেহের ওজন কমাতে সাহায্য করে।

ত্বকের সুস্থতায় কাঠবাদাম:

কাঠবাদামের ভিটামিন-ই ত্বকের রুক্ষতা ও শুষ্কতা দূর করতে বেশ কার্যকরী। ত্বকের জন্য প্রাকৃতিক ময়েসচারাইজার হিসেবে কাজ করে এটি।

ত্বক উজ্জ্বল করতে কাঠবাদাম:

কাঠবাদামের গুড়ো খুব ভালো স্ক্রাবার হিসেবে কাজ করে। কাঠ বাদাম বেটে তার সাথে মধু মিশিয়ে ত্বকে লাগালে ত্বক হয়ে ওঠে উজ্জ্বল ও কোমল।

আরো পড়ুন: বাদাম খাওয়ার সঠিক নিয়ম

এই ছিলো কাঠবাদামের উপকারিতা ভালো লাগলে ,অবশ্যই লাইক কমেন্ট শেয়ার করবেন।

Photo Credit: Pixabay

সূত্র : অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *