আলুর উপকারিতা ও অপকারিতা

আলুর উপকারিতা ও অপকারিতা: প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় সবচেয়ে বেশি যে সবজিটি থাকে সেটি হলো আলু। সারাবছর পাওয়া যায় এবং নানা উপায়ে খাওয়া যায় বলে আলুর চাহিদা সবচেয়ে বেশি। শরীরে পুষ্টি যোগানো থেকে রূপচর্চা- সবকিছুতেই রয়েছে আলুর উপস্থিতি। পুষ্টিকর এই সবজিটি তাই রাখুন প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায়।

আলুর পুষ্টিগুণ:

আলুতে যে যে পুষ্টিগুণ রয়েছে:

শক্তি ৩২১ জুল (৭৭ ক্যালরি)

স্টার্চ ১৫ গ্রাম

তন্তু ২.২ গ্রাম

চর্বি ০.১ গ্রাম

প্রোটিন ২ গ্রাম

পানি ৭৫ গ্রাম

থায়ামিন (ভিটামিন বি-১) ০.০৮ মিলিগ্রাম

রায়বোফ্লাভিন (ভিটামিন বি-২) ০.০৩ মিলিগ্রাম

নিয়াচিন (ভিটামিন বি-৩) ১.১ মিলিগ্রাম

ভিটামিন বি-৮ ০.২৫ মিলিগ্রাম

ভিটামিন সি ২০ মিলিগ্রাম

ক্যালসিয়াম ১২ মিলিগ্রাম

আয়রন ১.৮ মিলিগ্রাম

ম্যাগনেসিয়াম ২৩ মিলিগ্রাম

ফসফরাস ৫৭ মিলিগ্রাম

পটাশিয়াম ৪২১ মিলিগ্রাম

সোডিয়াম ৬ মিলিগ্রাম।

আলুর উপকারিতা:

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ:

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্যে কম সোডিয়ামযুক্ত খাদ্য খাওয়া প্রয়োজন। কিন্তু তার সাথে প্রয়োজন বেশি পরিমাণে পটাসিয়াম। আলুতে এই দুটি জিনিসই সঠিক পরিমাণে আছে বলে রক্তচাপ সহজেই নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

আরো পড়ুন: করলার উপকারিতা ও অপকারিতা

ক্যান্সার থেকে মুক্তি:

আলুতে রয়েছে ফোলেট যা ডি.এন.এ. তৈরী ও মেরামত করতে সাহায্য করে। এর ফলে যেসব কোষগুলি ক্যান্সারের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে, সেগুলি নষ্ট হয়ে যায়। এছাড়া আলুতে থাকা ফাইবার কোলন ক্যান্সার মুক্ত করতে সাহায্য করে।

হাড়ের স্বাস্থ্য:

আলুতে থাকে আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম ও জিঙ্ক, এই সবকটি উপাদান হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্যে উপযুক্ত। ফলে আলু শরীরের গঠন মজবুত করতে সাহায্য করে। এছাড়া আলুতে রয়েছে ফসফরাস যা অস্টিওপরোসিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে ।

মানসিক চাপ কমায়:

আলুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি-৬ রয়েছে, যা মন ভালো রাখার জন্য কার্যকরী দুটি উপাদান সেরেটোনিন ও ডোপামিন নামক নিওট্রান্সমিটার গঠনে সহায়তা করে। নিওট্রান্সমিটার মস্তিষ্কে অনুভূতি আদান প্রদান করে থাকে এবং মানসিক চাপ কমিয়ে মন ভালো করতে সহায়তা করে।

হজম ক্ষমতা:

শরীরে সঠিক পরিমাণে ফাইবার প্রবেশ করলে হজম করার ক্ষমতা বাড়ে ও পাচনতন্ত্র সঠিককভাবে চলতে থাকে।

আরো পড়ুন: ফুলকপির উপকারিতা ও অপকারিতা

দাঁতের সমস্যা:

দাঁত বা মাড়ির সমস্যার ক্ষেত্রে ভিটামিন সি বেশ উপযুক্ত। তাই এক টুকরো আলু দিয়ে রোজ দাঁত পরিষ্কার করলে দাঁতের নানা সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

পেটের সমস্যা:

পেটের নানারকম সমস্যা যেমন ডায়রিয়া, ডিসেন্ট্রি বা হজম সমস্যা দেখা গেলে আলু সেদ্ধ করে খেলে বেশ খানিকটা উপকার পাওয়া যায়।

আলুর অপকারিতা:

  • আলু স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু হলেও ১০০ গ্রাম আলুর ক্যালোরি হিসেব করলে দাঁড়ায় প্রায় ১১৩ ক্যালোরি। শরীরে বেশি পরিমাণে ক্যালোরি গ্রহণ করলে ওজন বেড়ে যাওয়ার প্রবল সম্ভাবনা থাকে।
  • আলুতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট। শরীরের জন্যে প্রয়োজনের অধিক কার্বোহাইড্রেট শুধুমাত্র ওজন বাড়ানোর সমস্যাই সৃষ্টি করেনা, তার সাথে ডায়বেটিসের মত সমস্যাও সৃষ্টি করতে পারে।
  • আপনার যদি ডায়বেটিস বা অতিরিক্ত ওজনের সমস্যা থাকে, তাহলে খাদ্য তালিকা থেকে আলু বাদ দেওয়াই ভাল।

যতই উপকারী হোক, তবুও অতিরিক্ত গ্রহণ করলে সব খাদ্যের ক্ষেত্রেই কোনো না কোনো সমস্যা দেখা যায়, এটাই স্বাভাবিক। আলুও সে নিয়মের ব্যতিক্রম না।

কিন্তু একথা অস্বীকার করার উপায় নেই যে আলুর মধ্যে উপস্থিত বেশ কিছু উপাদান যেমন পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, মিনারেল, ভিটামিন, ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ ও কার্বোহাইড্রেট শরীরের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

আরো পড়ুন: বেগুনের উপকারিতা

এই ছিলো আলুর উপকারিতা ও অপকারিতা ভালো লাগলে ,অবশ্যই লাইক কমেন্ট শেয়ার করবেন।

Photo Credit: Pixabay

সূত্র : অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *