আখরোটের উপকারিতা

আখরোটের উপকারিতা: বাদামের তালিকায় সবচেয়ে উপরে যে বাদাম আছে, তা হল আখরোট। অনেকেই ভেবে থাকেন এতে প্রচুর ফ্যাট থাকে, তাই এড়িয়ে চলেন। কিন্তু ব্যপারটি তাই নয়। আখরোট অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, প্রোটিন, ফাইবার এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ। এই বাদাম হৃদরোগের উন্নতি, ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাস, মস্তিষ্কের কার্যকারিতা সঠিক রাখতে পারে ।

আখরোটের উপকারিতা:

হার্ট ভালো রাখে:

আখরোটে রয়েছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যা শরীরে খারাপ কোলেস্টোরলের মাত্রা কমিয়ে ভালো কোলেস্টোরলের মাত্রা বৃদ্ধি করে । ফলে হার্ট সুস্থ এবং ভালো থাকে।

ডায়াবিটিসের ঝুঁকি কমায়:

যারা ডায়াবিটিসের সমস্যায় ভোগেন তাদের জন্য চিকিৎসকরা আখরোট খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন । একটি গবেষণা মতে , যে নারীরা সপ্তাহে ২দিন ২৮ গ্রাম আখরোট খেয়েছে তাদের টাইপ- ২ ডায়াবেটিস হওয়ার ঝুঁকি ২৪ শতাংশ কমে গিয়েছে । যদিও গবেষণাটি শুধু নারীদের ওপর করা হয়েছিল কিন্তু বিশেষজ্ঞদের মতে ছেলেদের ক্ষেত্রেও কোনো হেরফের ঘটবে না।

আরো পড়ুন: ড্রাগন ফলের উপকারিতা

ওজন নিয়ন্ত্রণ করে:

আখরোটে প্রোটিন , ফাইবার ও ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এর পরিমান যথাযথ ভাবে রয়েছে । এই ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডকে ‘গুড ফ্যাট ‘ বলা হয় , যা ওজন কমাতে সাহায্য করে । তাই ওজন নিয়ন্ত্রণ রাখতে খাদ্য তালিকায় অবশ্যই আখরোট রাখবে ।

অনিদ্রা দূর করে:

আখরোটে মেলাটোনিন নামক এক প্রকার যৌগ থাকে । এই মেলাটোনিন ঘুমের পক্ষে বিশেষ সহায়ক ।

স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে:

আখরোটে থাকে বায়োটিন ( ভিটামিন বি সেভেন ) যা চুলকে শক্তিশালী করে ।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে:

ত্বক উজ্বল ও টানটান রাখতে নিয়মিত আখরোট খান কারণ আখরোটে থাকে ভিটামিন ডি এবং প্রচুর পরিমানে আন্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বককে free radical এর হাত থেকে রক্ষা করে এবং বলিরেখা ও বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না ।

আরো পড়ুন: আপেল এর উপকারিতা

মানসিক অবসাদ দূর করে:

আখরোট মানসিক অবসাদ দূর করতে ভীষণ ভাবে সাহায্য করে ।

মস্তিস্ক ভালো রাখতে:

আখরোটে বেশ কয়েকটি নিউরোপ্রোটেক্টিভ যৌগ যেমন – ভিটামিন ই ,ফোলেট , মেলাটোনিন ,ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে আখরোট খাওয়া মস্তিস্ক স্বাস্থ্যের জন্য ভীষণ উপকারী। আখরোট এ থাকা উপাদান পারকিনসন্স রোগ এবং আলজাইমার’স হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয় । স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে মস্তিষ্কের ফাংশন ভাল রাখে ।

ক্যান্সার প্রতিরোধ:

আখরোট খেলে তা ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয় বিশেষত অগ্ন্যাশয় , প্রস্টেট ও মলদ্বারের।

হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করে :

আখরোটে থাকা ফাইবার হজম ক্ষমতা বজায় রাখতে সাহায্য করে ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

আরো পড়ুন: আলু বোখারার উপকারিতা

গর্ভাবস্থায় উপকারী:

গর্ভবতী নারী যাদের ডায়েটে উচ্চমাত্রায় ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে তাদের খাদ্যতালিকায় আখরোট রাখা উচিত।

হাড় শক্ত করে:

আখরোটে উপকারী ক্যালসিয়াম রয়েছে যা হাড়ের স্বাস্থ্য ঠিক রাখে ।

Photo Credit: Pixabay     

সূত্র :অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *